অধিনায়ক ওয়ালশ কোচ ওয়ালশের অনুপ্রেরণা

0

এফএনএস স্পোর্টস: আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথমবার কোনো সিরিজে যখন নেতৃত্বের স্বাদ পেয়েছিলেন কোর্টনি ওয়ালশ, সেটি ছিল অন্তবর্তীকালীন দায়িত্ব। প্রথমবার আন্তর্জাতিক দলের প্রধান কোচও হলেন অন্তবর্তী দায়িত্বে। ভারপ্রাপ্ত অধিনায়কের দায়িত্বে হয়েছিলেন সফল। কোচ হিসেবেও হাঁটতে চান সেই সাফল্যের পথে।

১৯৯৪ সালের ভারত সফরের আগে মানসিক অবসাদের কারণে বিশ্রামে যান সেই সময়ের ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক রিচি রিচার্ডসন। ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক করা হয় ওয়ালশকে।

সেবারের আগেই অবশ্য রিচার্ডসনের ইনজুরিতে একটি টেস্টে নেতৃত্ব দেওয়ার অভিজ্ঞতা হয়েছিল ওয়ালশের, ১৯৯৪ সালের এপ্রিলে যে টেস্টে ৩৭৫ রানের রেকর্ড গড়েছিলেন লারা। তবে সে বছরের নভেম্বরে ভারত সফর দিয়ে পুরো সিরিজের জন্য নেতৃত্ব পান ওয়ালশ। পিছিয়ে থেকেও সেই সিরিজ ড্র করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক হিসেবে এরপর নিউ জিল্যান্ড সফরে যান ওয়ালশ। সেখান থেকে জিতে ফেরেন টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজ।

সেই ওয়ালশ এখন বাংলাদেশে। ছিলেন বোলিং কোচের দায়িত্বে। একজন প্রধান কোচ খুঁজতে থাকা বিসিবি শ্রীলঙ্কায় ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য তাকেই দিয়েছে প্রধান কোচের দায়িত্ব।

ভারপ্রাপ্ত কোচ ওয়ালশ দায়িত্ব নেওয়ার পর ফিরে গেলেন সেই দুই যুগ আগে, ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক থাকার দিনগুলোতে।

“মনে তো পড়ছেই (ভারপ্রাপ্ত অধিনায়কের সময়টা)। এটি আসলে দায়িত্ববোধ জাগিয়ে তোলে। এক দল ছেলেকে দেখভাল করতে হবে, নিশ্চিত করতে হবে যেন তারা ঠিক পথে থাকে। আমি কি করতে চাই ও অর্জন করতে চাই, সেটি নিয়ে পরিষ্কার ভাবার সুযোগও করে দেয় এটি।”

“আমি দায়িত্বের স্বাদ প্রথম পেয়েছিলাম যখন অন্তবর্তীকালীন অধিনায়ক ছিলাম। কিছুটা সাফল্যের স্বাদও পেয়েছিলাম। সেই সাফল্য যদি এখানেও ধরে রাখতে পারি এবং একই রকম গতি ও সক্রিয়তায় এগিয়ে যেতে পারি, আমি খুশি থাকব। কাজটি খুব চ্যালেঞ্জিং হবে। আমি একটি করে ম্যাচ ধরে এগোব।”

ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ দল শ্রীলঙ্কা যাবে আগামি রোববার। প্রথম ম্যাচ ৮ মার্চ।

Share.

Leave A Reply