ত্রিদেশীয় সিরিজে বাড়তি সতর্কতার প্রয়োজন: ওয়ালশ

0

এফএনএস স্পোর্টস: অলরাউন্ডারসহ বিশ্বকাপ দলের পাঁচ পেসারের তিন জনই ভুগছেন চোটে। তাই আয়ারল্যান্ডে হতে যাওয়া ত্রিদেশীয় সিরিজে বাড়তি সতর্কতার প্রয়োজন দেখছেন কোর্টনি ওয়ালশ। প্রধান কোচ স্টিভ রোডসকে এই ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তি দিয়েছেন পেসারদের ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খেলানোর পরামর্শ। একই সঙ্গে বাড়তি পেসারও নিয়ে যেতে মত দিয়েছেন এই পেস বোলিং কোচ।

সাইড স্ট্রেইন থেকে সেরে উঠছেন রুবেল হোসেন। পায়ের চোটে ভুগছেন মুস্তাফিজুর রহমান। টেনিস এলবোর চোটের সঙ্গে লড়াই করছেন পেস বোলিং অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন। বোলারদের ফর্ম নিয়ে এই মুহূর্তে ভাবছেন না ওয়ালশ।

“এই মুহূর্তে চোটই সবচেয়ে বড় সমস্যা। মুস্তাফিজ চোটের কারণে বোলিং করতে পারছে না। রুবেল সবেমাত্র চোট থেকে সেরে উঠেছে। সাইফ এসেছে টেনিস এলবোর সমস্যা নিয়ে।”

“পাঁচ জনের মধ্যে তিনজনই চোটে ভুগছে। ওদের বোলিংয়ে ফিরে পাওয়া আমাদের প্রয়োজন। আয়ারল্যান্ড ও বিশ্বকাপে বোলিং করার জন্য ওরা যেন যথেষ্ট ফ্রেশ থাকে। যদি কোনো কারণে প্রয়োজন হয় ওদের বাইরেও আমাদের তাসকিন, খালেদ আর শফিউল আছে।”

দুই হাঁটুতে অসংখ্য অস্ত্রোপচারের ধাক্কা সামাল দেওয়া মাশরাফির সামর্থ্যে অগাধ আস্থা ওয়ালশের। অধিনায়কের ওপরও যেন বাড়তি চাপ না পড়ে সেদিকে নজর আছে তার।

“আমি জানি মাশরাফি একজন যোদ্ধা। সে লড়াই করবে। তবে সেও কিন্তু শতভাগ ফিট নয়। তাই ওদের সম্পূর্ণ ফিট করে তোলা আমাদের লক্ষ্য। আমি প্রধান কোচকে বলেছি, ব্যাকআপ পেসার আয়ারল্যান্ডে নিয়ে যেতে পারি কি না। এই বোলারদের সেরে ওঠার সময়ে ওরা আমাদের সহায়তা করতে পারবে। আমাদের হাতে এখনও কিছু দিন সময় আছে। দেখব ওদের চোট কতটা গুরুতর, এরপর একটা সিদ্ধান্ত নেব।”

আয়ারল্যান্ড সফরের জন্য ১৭ জনের দল দিয়েছে বিসিবি। বাড়তি যোগ হয়েছেন অফ স্পিনার নাঈম হাসান ও ব্যাটসম্যান ইয়াসির আলী চৌধুরী। তাদের সঙ্গে বাড়তি পেসার থাকলে বেশি ভালো লাগতো ওয়ালশের।

“এই মুহূর্তে অনেকেই চোটে ভোগায় আমি ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খেলানোরই পরামর্শ দেব। ওরা কতটা দ্রুত সেরে উঠছে তা দেখতে আমরা হয়তো আরও তিন-চার দিন সময় নেবো।”

“যাদের চোট আছে তাদের আমরা আয়ারল্যান্ডে নিতে চাই না। সেখানে গিয়ে কাজের চাপে আবার চোটে পড়তে পারে, আবার ধাক্কা খেতে পারে। যদি আয়ারল্যান্ড সিরিজে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খেলানোর কৌশল নেওয়া হয় তাহলে প্রত্যেকেই সতেজ থাকতে পারবে। কারণ, এটা অনেক দীর্ঘ বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে।”

শেষ চার ম্যাচে দুইবার পাঁচ উইকেট নেওয়া সাইফকে নিয়ে দারুণ খুশি ওয়ালশ। তার বিশ্বাস, পুরোপুরি ফিট হয়ে উঠলে বিশ্বকাপে বড় শক্তি হয়ে উঠবেন এই অলরাউন্ডার।

“ও অনেক উন্নতি করেছে। ও খুব ভালো বোলিং করেছে। ও একজন রোমাঞ্চকর অলরাউন্ডার। ঘরোয়া ক্রিকেটে ওর ফর্ম দারুণ। ওর আত্মবিশ্বাস খুব ভালো। টেনিস এলবোর সমস্যা কাটিয়ে ওকে যদি আমরা সম্পূর্ণ ফিট করে তুলতে পারি ও আমাদের জন্য অনেক বড় শক্তি হবে।”

Share.

Leave A Reply