বিএনপির দন্ডপ্রাপ্ত নেতাকর্মীদের বাড়িতে গিয়ে স্বজনদের শান্তনা দিলেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যনের প্রতিনিধি আইনজীবিরা

0

নিজস্ব প্রতিনিধি : দন্ডপ্রাপ্ত বিএনপির নেতাকর্মিদের পরিবার ও স্বজনদের শান্তনা দিতে ও আইনগত সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দিতে গতকাল মঙ্গলবার সারাদিন বাড়ি বাড়ি গিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের প্রতিনিধি বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ব্যারিষ্টার মীর হেলাল উদ্দিন, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ওবাদুর রহমান চন্দন,এ্যাডভোকেট নিপুণ রায় চৌধুরী,ব্যারিষ্টার সাইফুর রহমান,এ্যাডভোকেট গোলাম আখতার জাকির,এ্যাডভোকেট মাসুদ খন্দকার,এ্যাডভোকেট লুবনা,এ্যাডভোকেট রওশোন আফরোজ,ছাত্রদলের সাবেক নেত্রী আরিফা সুলতানা রুমা,যুবদলের পাবনা জেলা সাধারণ সম্পাদক হিমেল রানা প্রমুখ। তারা সকালে ঈশ^রদী পৌরসভার সাবেক মেয়র ও বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মোখলেছুর রহমান বাবলু, ঈশ^রদী পৌর বিএনপির সাধারন সম্পাদক জাকারিয়া পিন্টু, জেলা বিএনপির মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক আক্তারুজ্জামান আখতার, ঈশ^রদী সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি রেজাউল করিম শাহিন, বিএনপি নেতা মহিদুল আলম অটল, ঈশ^রদী স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক আজিজুর রহমান শাহিন, পৌর যুবদলের সভাপতি নূরে আলম সিদ্দিকী শ্যামল, স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা মাহবুবুর রহমান পলাশ, ঈশ^রদী পৌর বিএনপির সাবেক সম্পাদক শামসুল আলম।সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার সাবেক প্যানেল মেয়র শামসুল আলম, উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন বিশ্বাস, পাবনা জেলা বিএনপির মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক কে এম আক্তারুজ্জামান আক্তার, পাকশীর সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, সাহাপুরের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নেফাউর রহমান রাজু, সাবেক ছাত্রনেতা মাহবুবুর রহমান পলাশ, সাবেক ভিপি রেজাউল করিম শাহীন, যুবদল নেতা আজিজুর রহমান শাহীন, সেলিম আহমেদ, পৌরসভার কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন জনি, বিএনপি নেতা ইসলাম হোসেন জুয়েল, শহীদুল ইসলাম অটল ও আব্দুল জব্বার এর পরিবারসহ সকল নেতার পরিবারের সাথে দেখা করেন। এ সময় আইনজীবি প্রতিনিধির প্রধান ব্যারিস্টার মীর হেলাল বলেন,আপনাদের কাছে আমাদের পাঠিয়েছে আমাদের নেতা তারেক রহমান,তিনি আমাদের বলেছেন এই মামলার সব দায়িত্ব তিনি বহন করবেন,এছাড়াও আপনাদের সব ধরনের সহযোগিতা করবেন বলে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান বলেছেন। ব্যারিস্টার হেলাল আরো বলেন,দেশে আইনের শাসন নাই,ন্যায়বিচার নেই,মানবাধিকার নেই। এই আদালত ন্যয়বিচার করেননি। এ সময় দন্ডপ্রাপ্ত বিএনপির নেতাকর্মিদের পরিবার সদস্যরা জানান একমাত্র এ্যাডভোকেট শিমুল বিশ্বাস ছাড়া,আমাদের পাশে এখন পর্যন্ত আর কেউ আসেনি।

Share.

Leave A Reply