বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির কাফেলায় নেতৃত্ব দিলেন কারামুক্ত শিমুল বিশ^াস

0

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার নি:শর্ত মুক্তির দাবিতে পাবনায় বিএনপি নেতাকর্মীদের উদ্যোগে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির বিশাল কাফেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে দুুপুর অবধি সদ্য কারামুক্ত বিএনপি চেয়ারপার্সনের বিশেষ সহকারী এড. শিমুল বিশ^াসের নেতৃত্বে বিশাল গাড়ি বহর নিয়ে এই মুক্তির কাফেলা অনুষ্ঠিত হয়। কাফেলাতে অংশগ্রহনকারীরা বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে গগনবিদারী শ্লোগানে শ্লোগানে প্রকম্পিত করে তোলে পাবনার আকাশ বাতাস। খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিভিন্ন স্থানে অনুষ্ঠিত হয় বেশ কয়েকটি পথসভা। সেখানে বক্তব্য দেন সদ্য কারামুক্ত বিএনপি নেতা এড. শিমুল বিশ^াস। এর আগে ১৫ মাস পর কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে নিজের মাতৃভূমি  পাবনাতে আসার পথে সকাল সাড়ে দশটায় কাজিরহাট ঘাটে দলের হাজার হাজার নেতাকর্মী তাকে ফুলেল শুভেচ্ছায় স্বাগত জানান। পথসভায় শিমুল বিশ^াস বলেন, দেশের মানুষ আজকে ভালো নেই। সকলের কণ্ঠ রোধ করে জোর করে সরকার ক্ষমতায় টিকে আছে। মানুষ এই দু:শাসন থেকে মুক্তি চায়। আইন শৃংখলা বাহিনীকে দলীয় বাহিনীর মতো ব্যবহার করে এবং রাষ্ট্রের সকল স্তম্ভকে আওয়ামীকরণের মাধ্যমে পুরো দেশকেই এক অঘোষিত কারাগারে রূপান্তরিত করেছে এই সরকার। দেশের কারাগারগুলোতে বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের ভরে ফেলা হচ্ছে। আজকে মানুষ অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে কবে আপোসহীন দেশনেত্রী বেগম জিয়া কারাগার থেকে মুক্ত হবেন। মানুষের ভোটাধিকার নিশ্চিত করাসহ গণতন্ত্র পুন:উদ্ধারের এই সংগ্রামকে বেগবান করুন। ফ্যাসিবাদের দোসর জালিম এই সরকারের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলুন। একজন সফল রাষ্ট্রপতির স্ত্রী ও দেশের একাধিকবারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ওপরে সরকার যে অমানবিক আচরণ ও নিষ্ঠুরতা করেছে, তা এদেশের রাজনৈতিক ইতিহাসে কলংকিত অধ্যায় হয়ে থাকবে। তবে সরকারকে জানান দিতে চাই এখনও এদেশের মানুষ বিএনপির পতাকাতলে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বের প্রতি আস্থা নিয়ে রয়েছে। শত অত্যাচার জুলুম নির্যাতন করেও শেষ রক্ষা হবে না। আগামী দিনে বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বেই সরকারের পতন ঘটায়ে মানুষের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা করা হবে। কাজিরহাট ঘাট থেকে বিশাল গাড়ির বহর নিয়ে খালেদা জিয়ার এই মুক্তির কাফেলাটি পাবনা পৌছে বেলা তিনটায়। এরপরে দলীয় কার্যালয় চত্বরেও এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। কর্মসূচিতে সাবেক এমপি সেলিম রেজা হাবিব, সাবেক এমপি কে এম আনোয়ারুল ইসলাম, জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুস সামাদ খান মন্টু, সাধারন সম্পাদক হাবিবুর রহমান তোতা, দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য জহুরুল ইসলাম বাবুসহ বিএনপি ও তার অঙ্গ সংগঠনের হাজার হাজার নেতাকর্মী ও সমর্থকেরা অংশ নেন।Shimul Vai sobi-2

Share.

Leave A Reply