সিরিয়ায় আইএস-এর পতনের প্রতিশোধ নিতে শ্রীলঙ্কায় হামলা: বাগদাদি

0

এফএনএস ডেস্ক: শ্রীলঙ্কায় ইস্টার সানডেতে চালানো সিরিজ বোমা হামলার প্রশংসা করেছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন আইএস-এর নেতা বাগদাদি। তার দাবি, সিরিয়ায় আইএস এর হাত থেকে সর্বশেষ ঘাঁটি বাঘুজ দখল করে নেওয়ার প্রতিশোধ হিসেবে এ হামলা হয়। মার্কিন বার্তা সংস্থা এপি’র প্রতিবেদন অনুযায়ী, সোমবার সংগঠনটি প্রকাশিত এক ভিডিওতে বাগদাদিকে এসব কথা বলতে শোনা গেছে। শত্রুদের বুকে ‘কাঁটা’ হয়ে বিঁধতে জঙ্গিদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সে। ২১ এপ্রিল (রোববার) খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের ইস্টার সানডে উদযাপনকালে শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বো ও তার আশপাশের তিনটি গির্জা এবং তিনটি হোটেলসহ আটটি স্থানে সিরিজ বোমা হামলায় অন্তত ২৫৩ জন নিহত হয়। হামলার দায় স্বীকার করে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)। তাওহিদ জামাত বা এনটিজে নামে পরিচিত শ্রীলঙ্কার স্থানীয় উগ্রবাদী গোষ্ঠীর শীর্ষ নেতা জাহরান হাশিম মোহাম্মদকে হামলার মূল হোতা হিসেবে সন্দেহ করছে সে দেশের সরকার। আইএস-এর পক্ষ থেকেও দাবি করা হয়েছে, বাগদাদির প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করে হাশিমের পরিকল্পনা মাফিক ওই হামলা হয়েছে।

সর্বশেষ ২০১৪ সালে ভিডিও বার্তায় হাজির হতে দেখা গিয়েছিল আইএস নেতা বাগদাদিকে। প্রায় পাঁচ বছর পর সোমবার (২৯ এপ্রিল) আইএস প্রকাশিত নতুন এক ভিডিওতে আবারও দেখা গেছে তাকে। ১৮ মিনিটের ভিডিওটি প্রকাশ করেছে গোষ্ঠীটির মিডিয়া নেটওয়ার্ক আল ফুরকান। ওই ভিডিওতে কিছু স্থিরচিত্রও যুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। সেখানে দেখা গেছে, সাদা রঙের একটি কক্ষে আরও তিনজনের সঙ্গে বসে আছে বাগদাদি। তাদের পাশে অ্যাসল্ট রাইফেল। ভিডিওটির সঙ্গে যুক্ত একটি অডিও অংশে বাগদাদিকে শ্রীলঙ্কা হামলা নিয়ে কথা বলতে শোনা গেছে। মূল ভিডিওটি কবেকার তা জানা না গেলেও এপি’র ধারণা এটি শ্রীলঙ্কায় হামলার আগে ধারণ করা হয়েছে এবং অডিও অংশটি পরে যুক্ত করা। জঙ্গি তৎপরতাবিষয়ক খবরের মুনাফাভিত্তিক মাধ্যম সাইট ইনটেলিজেন্স বাগদাদির ওই বক্তব্যকে ইংরেজিতে ভাষান্তর করেছে। সে সূত্রে জানা গেছে, শ্রীলঙ্কায় সিরিজ বোমা হামলাকারীদের প্রশংসা করেছে আইএস নেতা। তার বক্তব্য অনুযায়ী: ‘শ্রীলঙ্কায় আপনাদের ভাইয়েরা ইস্টার অনুষ্ঠানে ক্রুসেডারদের ওপর নিবিষ্টভাবে যে হামলা চালিয়েছে তাতে একেশ্বরবাদীদের হৃদয় আনন্দে ভরে গেছে।’ ভিডিওতে দুই-পা আড়াআড়ি রেখে মেঝেতে বসে থাকা বাগদাদিকে দেখা যায়। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, সামনে উপবিষ্ট মুখঢাকা অনুসারীদের উদ্দেশে দেওয়া বক্তব্যে এই জঙ্গি নেতাকে তার গ্রুপের যোদ্ধাদের হত্যা ও কারাবন্দি করার প্রতিশোধ নেওয়ার আহ্বান জানাতে শোনা গেছে। ২০১৪ সালে ইরাক ও সিরিয়ার কিছু অংশ দখল করার পর বিশ্বের মুসলিমদের শাসক হিসেবে নিজেকে ঘোষণা করে বাগদাদি। ধারণা করা হয়, আইএসের স্বঘোষিত খিলাফতের পতনের পর এখন সে ইরাক-সিরিয়া সীমান্তে আত্মগোপনে আছেন। লোকচক্ষুর অন্তরালে থাকা আইএস নেতা বাগদাদি ২০১৪ সালে একবারই নিজের ছবি তুলতে দিয়েছিল। বাগদাদি সম্পর্কে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন রকমের গুজব উঠতে দেখা গেছে। কখনও দাবি করা হয়েছে সে মারা গেছে, কখনও বলা হয়েছে সে ধরা পড়েছে আবার কখনও দাবি করা হয়েছে বাগদাদি মারাত্মকভাবে আহত। কখনওবা সিরীয় বাহিনীর হাতে আটক হওয়া আবার কখনও তাকে বিষ খাইয়ে দেওয়ার গুজবও শোনা গেছে। ২০১৭ সালের জুনে বাগদাদির মৃত্যুর খবরকে ‘শতভাগ নিশ্চিত’ দাবি করেছিলেন রাশিয়ার কর্মকর্তারা। এর এক বছর পর এক অডিও বার্তা দিয়ে বাগদাদি জানিয়ে দিয়েছিল সে বেঁচে আছে। গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ইরাকের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের গোয়েন্দা ও সন্ত্রাস দমন বিভাগের প্রধান আবু আলি আল-বসরির বরাত দিয়ে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরাও খবর দিয়েছিল, বাগদাদি বেঁচে আছে। একটি বিমান হামলায় গুরুতর আহত হওয়ার পর তখন সে উত্তর-পূর্ব সিরিয়ার একটি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলো বলে জানানো হয়েছিল। আর সোমবার প্রকাশিত ভিডিও বার্তায় তাকে আবারও হাজির হতে দেখা গেলো।

Share.

Leave A Reply