৫৯৫ জন চরমপন্থির আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এমপি আত্মসমর্পণের সুযোগ গ্রহণ করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসুন নইলে ভবিষ্যতে নিরাপত্তা বাহিনীর হাত থেকে রক্ষা পাবেন না

0

স্টাফ রিপোর্টার : পাবনাসহ ১৪ টি জেলার (পাবনা, নওগাঁ, জয়পুরহাট, রাজশাহী, সিরাজগঞ্জ, নাটোর, বগুড়া, ফরিদপুর, রাজবাড়ী, খুলনা, সাতক্ষীরা, নড়াইল, যশোর ও টাঙ্গাইল) এবং ৪ টি দলের (পূর্ববাংলা সর্বহারা পার্টি, পূর্ববাংলা কমিউনিস্ট (লাল পতাকা) পার্টি, নিউ বিপ্লবি কমিউনিস্ট পার্টি ও কাদামাটি পার্টি) এর ৫৯৫ জন চরমপন্থি সদস্য গতকাল শহীদ এ্যাড. আমিন উদ্দিন স্টেডিয়ামে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এমপি’র কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন। আত্মসমর্পণকারীরা আগ্নেয়াস্ত্র ও স্থানীয়ভাবে তৈরি অস্ত্র এসময় মন্ত্রীর কাছে জমা দেন।02

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আত্মসমর্পণের সময়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তাদের ১৬ জন দলনেতাকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আত্মকর্মসংস্থানের সুবিধার জন্য আর্থিক অনুদান প্রদান করেন (আত্মসমর্পণকারী সকলে পাবেন)। আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এমপি বলেন, ‘অন্ধকার পথ ছেড়ে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে আলোকিত জীবন যাপনে ফিরে আসার জন্য আজকে যারা আত্ম সমর্পণ করল তারা ভবিষ্যতে যাতে সততার সাথে স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে পারে সেজন্য সরকারের পক্ষ হতে সব ধরণের সহযোগিতা করা হবে। আজকে যারা আত্মসমর্পণ করলেন তাদের আমি সাধুবাদ জানাই। তারা সরকারের পক্ষ হতে আইনি সহযোগিতা পাবেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, ‘যারা এখনও আত্মসমর্পণ করেননি তারা প্রধানমন্ত্রীর দেয়া আত্মসমর্পণের সুযোগটি গ্রহণ করুন। আমাদের আইন শৃঙ্খলা বাহিনী এখন অনেক আধুনিক ও চৌকস। আপনারা আর নৈরাজ্য করার সুযোগ পাবেন না। নিজেদের পরিবারের দুঃখ দুর্দশার কথা চিন্তা করে সুস্থ্য স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসুন। পরিবারের হাল ধরুন। নইলে ভবিষ্যতে নিরাপত্তা বাহিনীর হাত থেকে রক্ষা পাবেন না।’ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এমপি আরও বলেন, ‘ শেখ হাসিনার বাংলাদেশে কোন দুস্কৃতিকারীর স্থান হবেনা। এখন জলদস্যু, বনদস্যু ও মাদককারবারিরাও আত্মসমর্পণ করছে। সুতরাং আমি সকল প্রকার দুস্কৃতিকারীদের আহ্বান করছি  আপনারা আত্মসমর্পণ করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসুন।’ পাবনা জেলা পুলিশের উদ্যোগে পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে আয়োজিত চরমপন্থিদের আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন শামসুর রহমান ডিলু এমপি, এ্যাড. শামসুল হক টুকু এমপি, গোলাম ফারুক প্রিন্স এমপি, ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপি, আলহাজ্ব মকবুল হোসেন এমপি, আহমেদ ফিরোজ কবীর এমপি ও নাদিরা ইয়াসমিন জলি এমপি ও জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন। অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল ড. মোহাম্মদ  জাবেদ পাটোয়ারী। অনুষ্ঠানে সরকারি বেসরকারি কর্মকর্তাবৃন্দ, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দসহ অসংখ্য মানুষ অংশ নেন।pabna- chorom ponthi (1)

Share.

Leave A Reply