ইসরায়েলি অবস্থানে ইরানের হামলার পর সিরিয়ায় ইসরায়েলি হামলা

0

এফএনএস আন্তর্জাতিক : সিরিয়ায় মোতায়েন ইরানি বাহিনীগুলো সিরিয়ার সীমান্তবর্তী ইসরায়েলি সেনা চৌকিগুলো লক্ষ্য করে গোলাবর্ষণ করেছে বলে জানিয়েছে ইসরায়েল। এর জবাবে সিরিয়ায় ২০১১ সালে গৃহযুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে সবচেয়ে ব্যাপক হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। গতকাল বৃহস্পতিবারের শুরু থেকে রাতভর এসব হামলা-পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। ইসরায়েল অধিকৃত গোলান মালভূমিতে চালানো এ হামলাই সিরিয়া থেকে ইরানি বাহিনীগুলোর ইসরায়েলে চালানো প্রথম হামলা। ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী মুখপাত্র জানিয়েছেন, ইরানের কুদস বাহিনী গোলান মালভূমিতে ইসরায়েলি অবস্থানগুলো লক্ষ্য করে প্রায় ২০টি রকেট ছুড়েছে। কুদস বাহিনী ইরানের বিপ্লবী রক্ষীদলের একটি বিদেশি শাখা বলে জানিয়েছে রয়টার্স। ইসরায়েলি মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল জোনাথন কোনরিকাস জানিয়েছেন, ইরানি বাহিনীর ছোঁড়া রকেটগুলোর মধ্যে ‘অল্প কয়েকটিকে’ ধ্বংস করেছে ইসরায়েল, বাকিগুলো আঘাত করলেও ইসরায়েলি অবস্থানের ‘সীমিত’ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে এবং হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। স্থানীয় সময় রাত ১২টা ১০ মিনিটের দিকে হামলাটি চালানো হয় বলে জানিয়েছেন তিনি।

“আমরাও পাল্টা হামলা চালিয়েছি, কিন্তু ওই বিষয়ে বিস্তারিত আর কিছু আমার জানা নেই,” বলেছেন তিনি। সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা জানিয়েছে, বহু ইসরায়েলি রকেট রাডার স্টেশন, সিরিয়ার এয়ার ডিফেন্সের অবস্থানে এবং অস্ত্রগুদামে আঘাত হেনেছে। সীমান্তবর্তী এইতনিত্রার বাথ শহরেও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা হয়েছে। এরপর পর পর আরও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছে রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা এসএএনএ। রাজধানী দামেস্ক, হমস ও সুইদায় ইসরায়েলি ক্ষেপণাস্ত্র গুলি করে ধ্বংস করা হয়েছে বলেও জানিয়েছে বার্তা সংস্থাটি। সামরিক এক সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে এসএএনএর প্রতিবেদনে বলা হয়, “এয়ার ডিফেন্স বহু ইসরায়েলি রকেট ধ্বংস করেছে, তবে কয়েকটি লক্ষ্যে আঘাত হেনেছে, এতে একটি রাডার কেন্দ্র ধ্বংস হয়েছে। আরেকটি রকেট একটি অস্ত্রগুদামে আঘাত হেনেছে বলে জানিয়েছে তারা। দামেস্কে তারা হামলা চালিয়েছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীর এক মুখপাত্র বলেন, “এই মূহুর্তে ওই বিষয়ে আমি কোনো মন্তব্য করবো না। সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন তাদের এয়ার ডিফেন্সের গোলাবর্ষণের ভিডিও সম্প্রচার করেছে। এ সময় দেশাত্মবোধক গানও বাজানো হয়। দামেস্কের বাসিন্দারা এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম থেকে ছোঁড়া গোলা আকাশে বিস্ফোরিত হওয়ার বর্ণনা দিয়েছেন। ইসরায়েলি গণমাধ্যম জানিয়েছে, লেবাননের সীমান্তবর্তী মেতুল্লার অধিবাসীদের বোম্ব শেল্টারে আশ্রয় নেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। তবে বিষয়টি সম্পর্কে সরকারি কোনো ঘোষণা পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে রয়টার্স। লেবাননের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা দেশটির সেনা কমান্ডের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার ভোরে ইসরায়েলি যুদ্ধবিমানগুলো লেবাননের আকাশ সীমায় চক্কর দিয়ে পরে চলে গেছে। এসব ঘটনায় ইরান ও ইসরায়েলের মধ্যে সৃষ্ট উত্তেজনায় মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে বড় ধরনের যুদ্ধ ছড়িয়ে পড়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। আগে থেকেই সিরিয়া নিয়ে দেশদুটির মধে উত্তেজনা চলছিল। গত মাসে সিরিয়ার একটি বিমান ঘাঁটিতে ইসরায়েলি হামলায় ইরানি সামরিক বাহিনীর সাত সদস্য নিহত হওয়ার পর ইরান প্রতিশোধ নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরান ও ছয় জাতির পারমাণবিক চুক্তি থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন, যাকে স্বাগত জানিয়েছে ইসরায়েল ও সৌদি আরব। ট্রাম্পের ঘোষণার কয়েক ঘন্টার মধ্যেই সিরিয়ায় রকেট হামলা চালায় ইসরায়েল। সিরিয়ার কিসবেহ সামরিক ঘাঁটিতে চালানো ওই হামলায় আট ইরানি সামরিক সদস্যসহ ১৫ জন নিহত হয় বলে জানিয়েছে সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস। এ হামলার দায় স্বীকার বা অস্বীকার কোনটিই করেনি ইসরায়েল।

Share.

Leave A Reply