চলে গেলেন বর্ষীয়ান অভিনেত্রী ললিতা চট্টোপাধ্যায়

0

এফএনএস বিনোদন: বর্ষীয়ান অভিনেত্রী ললিতা চট্টোপাধ্যায় আর নেই। বুধবার দুপুরে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। ব্রেন স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। উত্তম কুমারের সঙ্গে সাবলীলভাবে স্ক্রিনস্পেস শেয়ার করেছিলেন তিনি। মঙ্গলবার রাতে স্ট্রোকের পর রাতেই তাকে ভর্তি করানো হয় মেডিকা হাসপাতালে। প্রখ্যাত স্নায়ুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. এল এন ত্রিপাঠীর তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা চলছিল অভিনেত্রীর।

ভেন্টিলেশনে ছিলেন তিনি। তার চিকিৎসার জন্য গঠন করা হয়েছিল বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের নিয়ে মেডিক্যাল বোর্ড। মহানায়ক উত্তম কুমারের ভক্ত ছিলেন ললিতাদেবী। সিনেমার জগতে আসাও মহানায়কের হাত ধরেই। প্রিয় নায়কের সিনেমার শুটিং দেখতে গিয়েছিলেন তিনি। তাকে দেখেই সিনেমায় অভিনয়ের প্রস্তাব দেন উত্তম কুমার। প্রিয় নায়কের সে আরজির মান  রেখেছিলেন। এক সন্তানের জননী হয়ে নতুন করে শুরু করেছিলেন জীবন। যেখানে রয়েছে লাইট-ক্যামেরা আর অ্যাকশন। মহানায়কের সঙ্গেই ‘বিভাস’ সিনেমার হাত ধরে শুরু হয়েছিল সে যাত্রা। তারপর ‘অ্যান্টনি ফিরিঙ্গি’, ‘জয়জয়ন্তী’,‘মেমসাব’ থেকে ‘হার মানা হার’- কত মণিমুক্তই না রয়েছে তার ঝুলিতে। অভিনয় করেছেন ‘ভিক্টোরিয়া নম্বর ২০৩’, ‘তালাশ’, ‘আপ কি কসম’-এর মতো সিনেমা। ইংরেজিতে দক্ষ ছিলেন ললিতা চট্টোপাধ্যায়। অভিনয়ে আসার আগে সাউথ পয়েন্ট স্কুলে শিক্ষকতাও করতেন। শেষ অরিন্দম শিলের ‘আসছে আবার শবর’-এ দেখা গিয়েছিল বর্ষীয়ান নায়িকাকে।  কিছুদিন আগেই শেষ করেছিলেন আদিত্য বিক্রম সেনগুপ্তর ‘জোনাকি’র শুটিং। বুধবার সকালেই তার অসুস্থতার খবর পেয়ে দেখতে গিয়েছিলেন শিল্পী সংসদের সভানেত্রী তথা অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। শিল্পীর সুস্থতা কামনা করেছিলেন তিনি। কিন্তু কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই সবকিছু শেষ হয়ে গেল। শিল্পীর মৃত্যুতে শোকের ছায়া টলিউডের শিল্পীমহলে।

Share.

Leave A Reply