ইন্দোনেশিয়ায় হামলা চালিয়েছে একই পরিবারের ৫ জন

0

এফএনএস আন্তর্জাতিক : সোমবার সকাল পৌনে ৯টার দিকে ইন্দোনেশিয়ার সুরাবায়ায় অবস্থিত পুলিশ সদর দফতর হামলায় একজন নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে রয়েছেন চারজন পুলিশ সদস্য। গত রোববার গির্জায় আত্মঘাতী হামলার ঘটনায় অন্তত ১৩ জন নিহত হওয়ার পর গতকাল সোমবারে ঘটা ওই হামলায়ও আত্মঘাতী হামলাকারীরা অংশ নিয়েছে। আগেই নিরাপত্তা ক্যামেরায় দেখা গিয়েছিল, হামলায় ব্যবহৃত মোটরসাইকেলে দুইজন আরোহী ছিল। এদের একজন নারী। একটি তল্লাসি চৌকির কাছে পৌঁছে মোটরসাইকেল আরোহীরা তাদের কাছে থাকা বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। হামলাকারীরা একই পরিবারের। পুলিশ জানায়, সোমবার হামলার শিকার একজন আট বছরের শিশু বেঁচে আছেন। সোমবারে পুলিশ দশর দফতরে হামলার আগে, রবিবার সন্ধ্যায় পূর্ব জাভার একটি ভবনে আরেকটি বিস্ফোরণ হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছিল। সিদরাজোর ওনোকোলো অ্যাপার্টমেন্ট ভবনের পঞ্চম তলা থেকে পর পর কয়েকটি বিস্ফোরণের শব্দ শোনার কথা জানিয়েছিলেন স্থানীয়রা। একই পরিবারের বাবা-মা ও একটি শিশু ওই ঘটনায় নিহত হয়েছে। পরিবারটির বেঁচে যাওয়া এক ছেলে ও এক মেয়েকে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করানো হয়েছে। তবে পুলিশ বলছে, তারা ভুক্তভোগী নয়, বরং বাবা-মায়ের সঙ্গে মিলে তারাও বিস্ফোরণ ঘটানোর কাজে জড়িত ছিল। অ্যাপার্টমেন্ট ভবনের ওই বিস্ফোরণের সঙ্গে পুলিশ সদর দফতরের হওয়া হামলার যোগসূত্র আছে কি না তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। এদিকে রবিবার সোমবারের হামলার আগের দিন ইন্দোনেশিয়ার একটি পরিবারের সদস্যরা মিলে তিনটি গির্জায় হামলা চালায়। একটি হামলা পুলিশ ঠেকিয়ে দিতে পারলেও দুই গির্জায় হওয়া বিস্ফোরণে নিহত হয়েছেন অন্তত ১৩ জন। ইতোমধ্যে এই হামলার দায়ভার স্বীকার করেছে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস।

Share.

Leave A Reply