এশিয়া কাপ কঠিন ছিল না দ. আফ্রিকা সফরের পর

0

এফএনএস স্পোর্টস: দক্ষিণ আফ্রিকায় সব ম্যাচ হেরে আসার পর এশিয়া কাপ কতটা কঠিন ছিল, শুনে হাসলেন রুমানা আহমেদ। লেগ স্পিনিং অলরাউন্ডার জানালেন, আফ্রিকায় কঠিন কন্ডিশনে খেলে আসার পর মালয়েশিয়ায় এশিয়ার দলগুলোর এই টুর্নামেন্ট মোটেও কঠিন ছিল না।

মেয়েদের এশিয়া কাপে ছয়বারের চ্যাম্পিয়ন ভারতকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো কোনো আন্তর্জাতিক শিরোপা জেতে বাংলাদেশ। দেশে ফিরে ফাইনালের সেরা খেলোয়াড় রুমানা জানান, দক্ষিণ আফ্রিকায় নিজেদের ঝালিয়ে আসার পর সব সহজ ছিল।

“দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের পর এটা আসলে কঠিন কোনো টুর্নামেন্ট ছিল না। দক্ষিণ আফ্রিকা যাওয়ার আগে কিন্তু আমরা বলেছিলাম, সেখানকার কন্ডিশন আমাদের জন্য অনেক বড় সমস্যা হবে। আর এবার খেলেছি এশিয়ার ভেতরে। আমরা আশাবাদী ছিলাম, মালয়েশিয়ায় আমরা অনেক ভাল করতে পারব। সেখানে কন্ডিশন আমাদের এতটাই পক্ষে ছিল যে অতিরিক্ত ভালো খেলে ফেলেছি (হাসি)।”

টুর্নামেন্টে ভারতকে দুইবার হারায় বাংলাদেশ। প্রাথমিক পর্বে হারমানপ্রিত কাউরদের হার এই টুর্নামেন্টের ইতিহাসেই ভারতের প্রথম হার। ১৪১ রান তাড়া করে পাওয়া সেই জয়কেই এগিয়ে রাখছেন রুমানা।

“ভারতের বিপক্ষে প্রথম জয়টাকে এগিয়ে রাখব। ওই ম্যাচটা জিততে না পারলে তো আমরা ফাইনালে খেলতে পারতাম না। প্রথমবারের মতো কোনো টুর্নামেন্টের ফাইনালে খেললাম। আমাদের জন্য এটা বেশি জরুরি ছিল। আর প্রথমবার যেহেতু ভারতকে হারাতে পেরেছিলাম ফাইনালে একটা বাড়তি আত্মবিশ্বাসী কাজ করেছে।”

এশিয়া কাপে খেলতে যাওয়ার আগে ফাইনালে খেলার লক্ষ্যের কথা জানিয়েছিল বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচ হারের পরও ফাইনালের ব্যাপারে আশাবাদী ছিলেন রুমানারা। তবে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার কথা সেভাবে ভাবেননি।

“সেভাবে মনে করিনি যে চ্যাম্পিয়ন হব। সত্যি বলতে, আমাদের প্রথম আর শেষ লক্ষ্য ছিল, ফাইনালে খেলব। প্রথম ম্যাচটা আমরা হয়তো খারাপ করেছি কিন্তু এরপর যেভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছি সেটা আমাদের পরিণত হয়ে ওঠার প্রমাণ। খুব দ্রুত ঘুরে দাঁড়াতে পেরেছিলাম।”

ভারতের বিপক্ষে দুই জয়েই সবচেয়ে বড় অবদান রুমানার। টুর্নামেন্টে লেগ স্পিনে নিয়েছেন ১০ উইকেট। ৩৭.৫ গড়ে করেছেন ৭৫ রান। নিজের পারফরম্যান্স নিয়ে তার মূল্যায়ন, “আমার পারফরম্যান্স নিয়ে আরও কাজ করে আসতে হবে।”

এবারের টুর্নামেন্টে ভারতীয়দের চমকে দিয়েছেন রুমানা। লেগ স্পিনারের হাত ধরে এগিয়ে চলা বাংলাদেশ দল পেয়েছে এশিয়ার সফলতম ব্যাটার মিতালি রাজের প্রশংসা।

“সেখানে দুইটা ডিনার পার্টি ছিল। সেখানে মিতালি রাজ যে বক্তব্য দিয়েছেন, তার অর্ধেক অংশ জুড়ে ছিল বাংলাদেশ। আমাদের ক্রিকেট এতোটাই উন্নতি করেছে যে ওরা খুব, খুব অবাক হয়েছে। ফাইনালের আগেই মিতালে বলেছিলেন, বাংলাদেশ ব্যাটে-বলে অনেক উন্নতি করেছে।”

Share.

Leave A Reply