অকালে ঝরে পড়ল কিশোরী বধূ আশার জীবন

0

মাসুদ রানা : ভাঙ্গুড়া উপজেলার শরৎনগর গ্রামের হতদরিদ্র আশরাফুল ইসলাম দম্পতির কন্যা আশা খাতুন (১৫)। গত শিক্ষাবর্ষে আশা জেএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৩ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়ে নবম শ্রেণিতে ভর্তি হয়েছিলো। ছোট বেলায় যথেষ্ট মেধাবী ছিলো সে। কিন্তু তার দরিদ্র পিতা-মাতা উপযুক্ত পরিবেশ দিতে না পারায় কাঙ্খিত ফলাফল অর্জনে ব্যর্থ হয় আশা। তবুও মায়ের ইচ্ছাতেই সে উপজেলার চরভাঙ্গুড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে নবম শ্রেণিতে বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তি হয়। মায়ের চাওয়া ছিলো একমাত্র মেয়েকে নুন্যতম এইচএসসি পাশ করিয়ে বিয়ে দিবেন। কিন্তু সে ইচ্ছায় বাধ সাধে আশার বাবা। পরিবারের অন্য সকলের অনিচ্ছাতে আশার বাবা পার্শ্ববর্তী চরভাঙ্গুড়া গ্রামের সাদিক মন্ডলের বখাটে ছেলে আমিরুল ইসলামের (৩০) সাথে দেড় লাখ টাকা কাবিনে বিয়ে দিয়ে দেন। বিয়ের সময় জামাইকে ৫০ হাজার টাকা যৌতুকও দেয় আশার পরিবার। বয়স কম হওয়ার কারণে আশা শ্বশুর বাড়ির লোকজনের সাথে নিজেকে খাপ খাওয়াতে হিমশিম খাচ্ছিলো। তাছাড়া পড়াশুনা বন্ধের জন্য আশাকে প্রচন্ড চাপও দিচ্ছিলো শ্বশুর বাড়ির লোকজন। কিন্তু আশা পড়াশুনা ছাড়তে নারাজ ছিলেন। এতে পরিবারের সকলে আশার সাথে খারাপ ব্যবহার করা শুরু করেন। এক পর্যায়ে আশার ওপর স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়ি অমানুষিক নির্যাতন শুরু করেন। নির্যাতন সইতে না পেরে অবশেষে ওই কিশোরী বধূ গত বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন। চিকিৎসার জন্য পাবনা সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে লাশের ময়নাতদন্ত শেষে শুক্রবার পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর কওে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এদিকে এঘটনায় আশার পরিবার থানায় হত্যা মামলা দায়ের করতে চাইলে স্থানীয় প্রধানবর্গের চাপে তা করতে পারেনি আশার পরিবার। পরে এড. মজিবর রহমানের ( সাবেক চেয়ারম্যান) মধ্যস্থতায় আশার পরিবারকে ৪ লাখ টাকা দিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে আপোষ-মীমাংসা করা হয়। মীমাংসা শেষে শুক্রবার রাতে চরভাঙ্গুড়া গোরস্থানে আশাকে দাফন করা হয়। সালিশের প্রধান এড. মজিবর রহমান জানান, উভয় পক্ষের চাহিদার কারণে বিষয়টি নিস্পত্তি করা হয়েছে। এ বিষয়ে আশার বাবা আশরাফুল জানান, তার মেয়ে হত্যার উপযুক্ত বিচার তারা পাবেন না বলে তিনি আপোষ করেছেন। ভাঙ্গুড়া থানার ওসি (তদন্ত) আসিফ ইসলাম জানান, আশার আত্মহত্যার ঘটনায় পাবনা সদর থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে। ময়না তদন্ত শেষে প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে।

Share.

Leave A Reply