বাংলাদেশ বিশেষজ্ঞ পেসার ছাড়া প্রথমবার

0

এফএনএস স্পোর্টস: ম্যাচের আগের দিন সাকিব আল হাসান যা ইঙ্গিত দিয়েছিলেন, তাতে একজন পেসার তো প্রায় নিশ্চিত ধরা হয়েছিল। দুইজনও থাকতে পারতো। কিন্তু ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মিরপুর টেস্টের একাদশে দেখা গেল উল্টো চিত্র। পেসার নেই একজনও! টেস্ট আঙিনায় দেড় যুগের পথচলায় বাংলাদেশের এটি ১১২তম টেস্ট। কিন্তু বিশেষজ্ঞ পেসার ছাড়া একাদশ এই প্রথমবার।

চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশ খেলেছিল এক পেসার নিয়ে। সেই পেসার মুস্তাফিজুর রহমান গোটা ম্যাচে বোলিং করেছিলেন কেবল চার ওভার। মিরপুর টেস্টে পেস বোলিংয়ের সম্ভাবনা নিয়ে তাই ছিল কৌতুহল। টেস্টের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে সাকিব কথা বলেছিলেন পেসারদের হয়েই।

“ঢাকার উইকেট সকালবেলা একটু হলেও পেস বোলারদের সব সময় সহায়তা করে। বিশেষ করে এমন আবহাওয়ায়, যখন একটু কুয়াশা পড়ে, একটু ঠান্ডা ঠান্ডা ভাব থাকে। সেটাও আমাদের বিবেচনায় আছে।”

অধিনায়ক আশা দেখালেও শেষ পর্যন্ত বিবেচনায় হালে পানি পায়নি পেস বোলিং। ২০১৬ সালে এই মাঠেই ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টে এক পেসার নিয়ে খেলেছিল বাংলাদেশ। একমাত্র পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি গোটা টেস্টে বোলিং করতে পেরেছিলেন কেবল ৩ ওভার। শুধু খেলাতে হয় বলেই এবার একজন পেসার খেলানোর মানে হয়তো পায়নি দল।

মিরপুরে এ দিন পেসার ছাড়া মাঠে নামার পর বাংলাদেশের স্বস্তি হয়ে এসেছে টস জয়। আগে ব্যাটিং করায় শুরুর কন্ডিশনের সুবিধা নিয়ে ভাবতে হয়নি। তবে আগে বোলিং করে একাদশে দুই পেসার নিয়েও চতুর্থ ওভার থেকে স্পিন এনেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এটিও বাংলাদেশের এক পেসারের সিদ্ধান্তের দিকে আঙুল তুলতে দিচ্ছে না খুব একটা।

টসের পর বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব বলেছেন, উইকেট বেশ শুষ্ক। তারা হয়তো তাই ভেবেছেন, পেস বোলিং এখানে খুব একটা কার্যকর হবে না। সময়ই বলে দেবে, ম্যাচে কোনো পেসারের অভাব সাকিব অনুভব করবেন কিনা।

Share.

Leave A Reply