মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রুশ সংযোগ : কংগ্রেসের কাছে মিথ্যা বলেছিলেন কোহেন

0

এফএনএস আন্তর্জাতিক ডেস্ক : প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাবেক ব্যক্তিগত আইনজীবী মাইকেল কোহেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রুশ সংযোগ নিয়ে কংগ্রেসের কাছে মিথ্যা বলেছিলেন বলে স্বীকার করেছেন। বৃহস্পতিবার পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই নিউ ইয়র্কের আদালতে হাজিরা দেন কোহেন। সেখানে তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ স্বীকার করে বলেছেন, রাশিয়ায় ট্রাম্পের নির্মাণ কোম্পানির প্রকল্পের ব্যাপারে তিনি কংগ্রেস সদস্যদের বিভ্রান্ত করেছিলেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়। এই বছরের শুরুতে কয়েকটি মার্কিন সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ২০১৬ সালে নির্বাচনের আগে পর্নো তারকা স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে নিজের আইনজীবী কোহেনের মাধ্যমে এক লাখ ৩০ হাজার ডলার পরিশোধ করেছিলেন ট্রাম্প। ২০০৬ সালের দিকে দুই জনের মধ্যে থাকা ব্যক্তিগত সম্পর্ক গোপন রাখতে তাকে ওই টাকা দেওয়া হয়েছিল। প্রথমে অভিযোগ অস্বীকার করলেও ফেব্রুয়ারিতে বিবৃতি দিয়ে ড্যানিয়েলসকে টাকা দেওয়ার কথা স্বীকার করেন কোহেন। কোহেন যেসব অভিযোগ স্বীকার করেছেন তার মধ্যে রয়েছে ৫ বার কর ফাঁকি দেওয়া, একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে মিথ্যা বিবৃতি দেওয়া, একবার ইচ্ছাকৃতভাবে অবৈধ লেনদেনে সাহায্য করা ও প্রার্থীর অনুরোধে প্রচারণায় অতিরিক্ত অর্থ প্রদান করা। নির্বাচনি আইন ভাঙায় ৬৫ বছর পর্যন্ত কারাদন্ড হতে পারে কোহেনের। তবে বিচারক উইলিয়াম পাউলি বলেছেন, সমঝোতা অনুযায়ী সর্বোচ্চ ৫ বছর ৩ মাসের কারাদন্ড হতে পারে তার। আগামী ১২ ডিসেম্বর তার সাজা ঘোষণা করা হবে। তার আগে ৫ লাখ মার্কিন ডলার জামানত দিয়ে তিনি জামিন পেয়েছেন। ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পকে জিতিয়ে দেয়ার জন্য রাশিয়া হস্তক্ষেপ করেছিল বলে ডেমোক্র্যাট দলের পক্ষ থেকে জোর অভিযোগ জানানো হয়েছিল। এখনো ওই অভিযোগের তদন্ত শেষ হয়নি। মাইকেল কোহেন গত বছর রুদ্ধদ্বার কক্ষে কংগ্রেস সদস্যদের এ সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তর দেন। কংগ্রেসের ওই শুনানিতে রাশিয়ায় ট্রাম্পের কোম্পানির পক্ষ থেকে একটি ভবন নির্মাণের বিষয়ে রুশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে নিজের যোগাযোগের বিষয়টিকে হাল্কা করে তুলে ধরেন কোহেন। ওই ভবনটি অবশ্য শেষ পর্যন্ত নির্মাণ করা হয়নি। কোহেন বৃহস্পতিবার আদালতের স্বীকার করেছেন, তিনি রাশিয়ায় ওই ভবন নির্মাণের আলোচনায় নিজের জড়িত থাকার ব্যাপারে কংগ্রেস সদস্যদের মিথ্যা তথ্য দিয়েছিলেন। ট্রাম্পের সাবেক এই আইনজীবী আদালত থেকে বের হওয়ার সময় সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেননি। তবে তার আইনজীবী সাংবাদিকদের বলেন, “তার মক্কেল (কোহেন) আদালতকে সহযোগিতা করেছেন এবং এ সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।” মাইকেল কোহেন প্রায় এক দশক ধরে ট্রাম্পের ব্যক্তিগত আইনজীবী ছিলেন। ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর তার প্রতি কোহেনের সমর্থন এতটা বেড়ে গিয়েছিল যে, এক পর্যায়ে তিনি বলেছিলেন, ট্রাম্পকে রক্ষার জন্য প্রয়োজনে তিনি গুলির সামনে বুক পেতে দেবেন।

Share.

Leave A Reply