ঐক্যফ্রন্টকে কেউ ঠেকাতে পারবে না: মান্না

0

এনএনবি : নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা মাহমুদুর রহমান বলেছেন, নির্বাচনের জন্য মার্কা ঘোষণার পর আনুষ্ঠানিক প্রচারে নামলে তাঁদের কেউ ঠেকাতে পারবে না।

গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘বর্তমান নির্বাচন পরিস্থিতি এবং নির্বাচনী এলাকা’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে মান্না এসব কথা বলেন।

মাঠে কোনো লড়াইয়ে ঐক্যফ্রন্টকে দেখা যাচ্ছে না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে মান্না বলেন, ‘মাঠে লড়াই করার জন্য জনগণ মাঠে আছে। সব জায়গায় হয়তো একই রকম নেই। কিছু কিছু জায়গায় কর্মীরা ঢুকলে পুলিশ ধরে কিন্তু তার মানে এই না, রাগ করে নির্বাচন ছেড়ে চলে যাব, যা সরকার চায়। দরকার হলে রাতে যাব। এক রাস্তায় না হলে অন্য রাস্তা দিয়ে যাব, কিন্তু যাব। লড়াইটা ছাড়ছি না।’ তিনি আরও বলেন, ‘মার্কা ঠিক হলে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রচার করার অনুমতি পাব। তখন সারা দেশেই কেউ বাধা দিয়ে আটকাতে পারবে না। তখন সবাই মাঠে নেমে পড়বে।’

নির্বাচনী লড়াইয়ে শেষ পর্যন্ত থাকবেন, এ কথা উল্লেখ করে মান্না বলেন, সার্বিক পরিস্থিতি অনুকূলে না থাকলেও কোনো পরিস্থিতিতেই নেতিবাচক সিদ্ধান্ত নেবেন না। শেষ পর্যন্ত লড়াই করবেন। তিনি আশা করেন তাঁরা জিতবেন।

নির্বাচন কমিশন প্রসঙ্গে মান্না বলেন, ইসি পক্ষপাতহীন আচরণ করেছে, এমন কোনো নজির নেই। সব দিকে দেখার অনুরোধ জানিয়ে তিনি ইসিকে একচোখা হতে না করেন। তাঁর বিরুদ্ধে কিছু অনলাইন পোর্টাল উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে অপপ্রচার চালাচ্ছে অভিযোগ করে নাগরিক ঐক্যের এ নেতা ইসির দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে মান্না একটি লিখিত বক্তব্য পড়েন। সেখানে বলা হয়, ১০ বছর পর দেশে অংশগ্রহণমূলক একটি নির্বাচন হচ্ছে। কিন্তু নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হওয়া নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। লিখিত বক্তব্যে অভিযোগ করা হয়, বিরোধী দলকে সর্বোচ্চ চাপে রেখে সরকার একতরফা নির্বাচন করার যে নীলনকশা করছে, তাতে নির্বাচন কমিশন সহযোগিতা করছে।

মান্নার নিজ আসন বগুড়া- ২ এ বিএনপির অনেক নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে এবং গ্রেপ্তার করা হয়েছে, অভিযোগ করে মান্না দ্রুতই এসব মামলা প্রত্যাহার করে গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের মুক্তি দাবি করেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন নাগরিক ঐক্যের নেতা শহীদুল্লাহ কায়সার, ফজলুল হক সরদার, মোফাখখারুল ইসলাম, বগুড়ার স্থানীয় বিএনপি নেতা মতিয়ার রহমানসহ প্রমুখ।

Share.

Leave A Reply