এ বছর বাড়তে থাকুক সুস্থ ধারার ছবি

0

এফএনএস বিনোদন: গত বছরটা চলচ্চিত্রের জন্য সুখকর ছিল না। এ বছর যেন সে রকম না হয়। বছরজুড়ে আমাদের দেশীয় ভালো প্রোডাকশনের সংখ্যা আরো বাড়ানো দরকার। ইন্ডাস্ট্রির যেসব সমস্যা আছে সেগুলো হয়তো নতুন বছরে আমরা কাটিয়ে উঠবো। আমি সে বিষয়ে পুরোপুরি আশাবাদী। নিরাশ কখনই ছিলাম না, হতেও চাই না- কথাগুলো বলছিলেন ঢালিউডের শীর্ষনায়ক শাকিব খান। গত বছর তার অভিনীত ‘আমি নেতা হবো’, ‘ক্যাপ্টেন খান’, ‘সুপারহিরো’, ‘ভাইজান এলো রে’, ‘নাকাব’, ‘চিটাগাইঙ্গা পোয়া নোয়াখাইল্যা মাইয়্যা’, ‘চালবাজ’ ও ‘পাঙ্কু জামাই’ নামের মোট আটটি ছবি মুক্তি পায়। নতুন বছরে বেশ কয়েকটি ছবি নিয়ে হাজির হবেন চলচ্চিত্রের এই সফল তারকা।

শাকিব খান এরইমধ্যে শাহীন সুমনের ‘একটু প্রেম দরকার’, শামিম আহমেদ রনীর ‘শাহেনশাহ’, সাকিব সনেটের ‘নোলক’ নামের তিনটি ছবির কাজ শেষ করেছেন। সামনে কাজী হায়াতের পরিচালনায় ‘বীর’ নামে নতুন একটি ছবিতে অভিনয় করার কথা রয়েছে তার। এ ছবিতে অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজনাও করবেন তিনি। শাকিব খান বলেন, নতুন বছরে কোন ছবিটি আগে মুক্তি পাবে তা জানি না। তবে ‘একটু প্রেম দরকার’, ‘শাহেনশাহ’, ‘নোলক’ নামে তিনটি ছবির গল্প তিন ধরনের। এই তিন ছবিতে অ্যাকশন, রোমান্স ও ড্রামা সবই রয়েছে। লুকেও ভিন্নতা রয়েছে। দর্শক ছবিগুলো বেশ এনজয় করবে বলে আশা করছি। নতুন বছরে মূলত তিন নায়িকার বিপরীতে দর্শক এই সুপারহিরোকে দেখতে পাবেন। ‘একটু প্রেম দরকার’ ছবিতে শবনম বুবলী, ‘শাহেনশাহ’ ছবিতে নুসরাত ফারিয়া আর ‘নোলক’ ছবিতে ববির বিপরীতে শাকিব খানকে দর্শকরা দেখতে পাবেন। এ ছাড়াও ‘একটু প্রেম দরকার’ ছবিতে মৃদুলা এবং ‘শাহেনশাহ’ ছবিতে রোদেলা জান্নাত নামের দুই নতুন মুখকে শাকিবের বিপরীতে দর্শকরা নতুন বছরে দেখতে পাবেন। এদিকে, গত বছরের শেষদিকে শাকিবের বিপরীতে নুসরাত ফারিয়াকে একটি টেলিকমের বিজ্ঞাপনে দর্শকরা দেখতে পান। এটি নির্দেশনা দেন আদনান আল রাজীব। শাকিব খান বলেন, এ কাজটি করার পর বেশ সাড়া পেয়েছি। আর কাজ করতে গিয়ে দেখলাম নির্মাতা হিসেবে আদনান বেশ মেধাবী। চলচ্চিত্রে এমন মেধাবী তরুণদের আসা উচিত। বিজ্ঞাপনচিত্রের ভাবনা, অ্যারেঞ্জমেন্ট বেশ বড় পরিসরে ছিল। ভালো লেগেছে কাজটি করে। দেড় যুগের অভিনয় জীবনে শাকিব খান কয়েকটি বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করেছেন। এর মধ্যে অন্যতম দুটি হচ্ছে ‘পাওয়ার ড্রিংকস’ আর ‘এশিয়ান ডুপ্লেক্স টাউন’-এর বিজ্ঞাপনচিত্র। বাংলাদেশের পাশাপাশি কলকাতার বাজারেও দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছেন এই নাম্বার ওয়ানখ্যাত হিরো। ‘শিকারি’ ছাড়াও শাকিব খান কলকাতার ‘নবাব’, ‘চালবাজ’, ‘ভাইজান এলো রে’ ও ‘নাকাব’ ছবিতে কলকাতার শ্রাবন্তী, শুভশ্রী, নুসরাত জাহান, সায়ন্তিকা, পায়েল মুখার্জির মতো জনপ্রিয় নায়িকাদের সঙ্গে এরইমধ্যে কাজ করেছেন। তার অভিনীত এসব ছবি ও ছবির গান পেয়েছে বেশ দর্শকপ্রিয়তা। তবে, দেশীয় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির প্রতি ভালোবাসা বরাবরই শাকিব খানের বেশি। গত বছর কলকাতার বেশকিছু ছবিতে উচ্চ পারিশ্রমিকে অভিনয়ের প্রস্তাব পাওয়ার পরও ছবিগুলোর কাজ ছেড়ে দিয়ে দেশীয় ছবিতে সময় দিয়েছেন শাকিব। এখানকার ছবিতে সময় দেয়ার পর ওপার বাংলার ছবিতে কাজ করবেন তিনি। কারণ বর্তমানে ঢালিউডের অবস্থা অনেকটা নাজুক। এমন অবস্থা নিয়ে এই তারকা বলেন, বছরের প্রথমেই তো আমদানি করা ছবি দিয়ে শুরু হচ্ছে বলে জেনেছি। ভালো কনটেন্ট না থাকার কারণে এমন খারাপ অবস্থা হচ্ছে আমাদের। আরো বেশি ভালো কনটেন্ট আসা দরকার। তবে, সুস্থ ধারার ছবি বাড়তে থাকুক এ বছর। আর চলচ্চিত্রের ব্যবসাটা এগিয়ে যাক এটাই আমার চাওয়া। আমি চাই সব শিল্পী, টেকনিশিয়ান কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়ুক। ইন্ডাস্ট্রির সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে দ্রুত সব সমস্যার সমাধান হোক। নতুন বছরে ভালো কিছুরই প্রত্যাশা রইলো।

Share.

Leave A Reply